মুন্সীগঞ্জের পানি বন্দী ১০ হাজার পরিবার

মুন্সীগঞ্জের পানি বন্দী ১০ হাজার পরিবার টঙ্গীবাড়িতে ৮ বাড়িঘর পদ্মা নদীতে বিলীন। নদীর তীরবর্তী নিচু এলাকাগুলোতে বন্যার পানি ডুকতে শুরু করেছে। গত ৪৮ ঘন্টায় এখানে ১২ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাত ৯টা থেকে শ্রীনগর ভাগ্যকুল পয়েন্টে পদ্মার পানি বিপদ সীমার ৪২ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে বইছে।

এছাড়া মাওয়া পয়েন্টে বিপদসীমার ২৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে বইছে। এখানে ২৪ ঘন্টায় পানি বেড়েছে ৯ সেন্টিমিটার।জেলার শ্রীনগর, লৌহজং ও টঙ্গীবাড়ী উপজেলার পদ্মা তীরবর্তী একাধিক গ্রাম পানি ঢুকতে শুরু করায় পানি বন্দি হয়ে পড়েছে ৩ উপজেলার ১০ হাজার পরিবার। বাড়িঘরের পাশাপাশি রাস্তা ঘাটও ডুবে যেতে শুরু করেছে।এদিকে টঙ্গীবাড়ি উপজেলার দিঘীরপাড় ইউনিয়নের হাইয়ের পাড়া এলাকায় নদী ভাঙ্গনে প্রায় ৮ টি বাড়ী বিলীন হয়ে গেছে।হুমকির মুখে রয়েছে শতাধিক বাড়িঘর ও মসজিদ।

টঙ্গিবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শহীদুল হক পাটোয়ারি জানান, ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্থদের সহযোগিতা করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট এলাকার ইউএনওদের সর্বোচ্চ সর্তক অবস্থানে রাখা হয়েছে।

আব্দুল্লাহ আল মাসুদ, মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি