অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে তিনটি শর্ত দিলেন মওদুদ

বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে সমান সুযোগ-সুবিধা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে বিএনপির সঙ্গে ‘বৈষম্যমূলক’ আচরণ করা হচ্ছে অভিযোগ করে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ আগামী নির্বাচনে সকল রাজনৈতিক দলের অংশ গ্রহণ, সুষ্ঠু, অবাধ, নিরপেক্ষ ও সবার কাছে গ্রহণযোগ্য করতে তিনটি শর্ত দিয়েছেন।

শনিবার দুপুরের জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে বাংলাদেশ ডেমোক্রেটিক কাউন্সিল আয়োজিত ‘লেভেল প্লেইং ফিল্ড এবং নির্বাচন কমিশনের ভুমিকা শীর্ষক’ এক আলোচনা সভায় তিনি এ ৩টি শর্তের কথা বলেন। এ জন্য নির্বাচনকালীন একটি নিরপেক্ষ সরকার, সেনা মোতায়েন ও শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠনের কথা বলেছেন দলটির এই নীতি নির্ধারক।

মওদুদ আহমদের দেয়া ৩টি শর্তগুলোর মধ্যে প্রথমটি হলো- নির্বাচনের সময় একটি নিরপেক্ষ সহায়ক সরকার থাকতে হবে। যাদের কোন স্বার্থ থাকবে না। যাদের অধীনে সব দল সমান সুযোগ পাবে। দ্বিতীয়ত, এই সহায়ক সরকারকে সহায়তা দেবার জন্য একটি শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন থাকতে হবে। তৃতীয়ত, ভোট দেয়ার নিশ্চয়তা দিতে হবে। এ জন্য সেনাবাহিনীকে প্রতিটি ভোট কেন্দ্র নিরাপত্তার দায়িত্ব দিতে হবে। যেন সবাই ভোট দিতে পারে। এই শর্ত না মানলে তবেই লেভেল প্লেইং ফিল্ড নিশ্চিত হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি এম এ হালিমের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যন সেলিমা রহমান, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. সুকোমল বড়ুয়া, কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমতউল্লাহ প্রমুখ।