নিউইয়র্কে নিজ বাসায় বাংলাদেশি পুলিশের আত্মহত্যা

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্টে (এনওয়াইপিডি) কর্মরত বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কর্মকর্তা নিজের পিস্তলের গুলিতে আত্মহত্যা করেছেন। স্থানীয় সময় রবিবার বিকেলে ৩টায় কুইন্সে সেন্ট আলবেন্স এলাকার ১১৩ এভিনিউ ও ২০৫ স্ট্রিটের নিজ বাসার বেসমেন্টে আত্মহত্যা করেন তিনি।

নিহত হেমায়েত হোসেন সরকার (৩৭) নামে ওই পুলিশ কর্মকর্তা স্ত্রী ও সাড়ে তিন বছরের এক ছেলেসহ নিউইয়র্কের কুইন্স ভিলেজে বসবাস করতেন। খবর পেয়ে বাংলাদেশ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন এবং সহ-সভাপতি আব্দুল খালেক খায়েরসহ কমিউনিটি লিডার বাকির আজাদ ওই বাসায় যান এবং পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানান।

লাশ উদ্ধারের পর নিউইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্টের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমকে আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। তবে কেন তিনি আত্মহত্যা করেছেন তা জানানো হয়নি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সিটি মেডিকেল এক্সামিনারের অফিসে নেয়া হয়েছে।

জানা যায়, সিরাজগঞ্জ জেলার বাসিন্দা হেমায়েত সরকার যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিলেন ২০০০ সালে। পুলিশ অফিসার পদে যোগ দেন ২০০৫ সালে। বাসায় তার বাবা এবং অপর ভাইয়েরাও সেখানে থাকেন। কেউই তার আত্মহত্যার কারণ খোঁজে পাচ্ছেন না।

পুলিশ ডিপার্টমেন্টের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এ নিয়ে চলতি বছর মোট পাঁচ পুলিশ অফিসার আত্মহত্যা করলেন। গত বছর আত্মহত্যা করেছিলেন চার অফিসার এবং একজন স্কুল-সেইফটি অফিসার। উল্লেখ্য, নিউইয়র্ক সিটিতে ৪৯ হাজার পুলিশ অফিসারের মধ্যে হাজারখানেক বাংলাদেশি রয়েছেন। এই প্রথম কোন বাংলাদেশি অফিসারের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটলো।

উল্লেখ্য, গত রবিবার নিউইয়র্ক সিটির কুইন্স এলাকায় নাদিয়া আফরোজ সুমী (৩২) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন।