নদের পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় জামালপুরে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

যমুনা ও ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় জামালপুরের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় বাহাদুরাবাদ পয়েন্ট যমুনার পানি ৫৬ সেন্টিমিটার বেড়ে আজ সোমবার সকালে বিপদসীমার ১১৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

যমুনা, ব্রহ্মপুত্রসহ শাখা নদীগুলোর পানি বাড়ছে হু হু করে। ইসলামপুর, দেওয়ানগঞ্জ ছাড়াও নতুন করে বন্যা প্লাবিত হয়েছে মেলান্দহ, মাদারগঞ্জ ও সরিষাবাড়ি উপজেলার বিস্তীর্ণ এলাকা। সব মিলিয়ে জেলার ৫ উপজেলার ৩০টি ইউনিয়নের দেড় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে।

সড়ক তলিয়ে যাওয়ায় বন্ধ হয়ে গেছে মেলান্দহ-মাহমুদপুর, ইসলামপুরের আমতলী-শিংভাঙ্গা, আমতলী-উলিয়া বাজার, মলমগঞ্জ-জারুলতলা, ইসলামপুর-গুঠাইল সড়ক যোগাযোগ। বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে জেলার ৭৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তলিয়ে গেছে বিস্তীর্ণ এলাকার রোপা আমন ও বীজতলা।

জামালপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাসেল সাবরিন জানিয়েছেন, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বন্যা দুর্গত ইসলামপুর ও দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় ১৫ মেট্রিক টন চাল ও ২০ হাজার টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।