ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টে ৫৭ ধারা অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে

৫৭ ধারার অপরাধ স্পষ্ট নয়, তাই এই ধারার অপব্যবহার হচ্ছে এবং সাংবাদিকদের স্বার্থ ক্ষুণ্ণ হয় এমন আইন করা হবে না বলেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। আজ রবিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) ‘মিট দ্য রিপোর্টার্স’ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ৫৭ ধারার অপরাধকে স্পষ্ট করে ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টে অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে। বিশাল মামলার জট দূর করে বিচারিক কার্যক্রম দ্রুত করতে সরকার সব ধরনের উদ্যোগ নিয়েছে। এর একটি হচ্ছে নতুন বিচারক নিয়োগ ও তৈরি। বিচারক তৈরির প্রক্রিয়াও কিন্তু সময়সাপেক্ষ। তিনি জানান, দেশের সকল আদালত ডিজিটালাইজ করার কাজ চলছে। সাজার বিষয়ে অপরাধ অনুযায়ী শাস্তির বিধান করা হবে। আগে ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট তৈরি হোক তারপর বিষয়টি নিয়ে কথা বলা যেতে পারে।

এ অনুষ্ঠানে সংগঠনের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন বাদশার সভাপতিত্বে সভা সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোরসালীন নোমানী।