গণহত্যা ঘটনার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায় করতে হবেঃ আসাদুজ্জামান

সংস্কৃতি বিষয়কমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, ১৯৭১ সালে পাকিস্তানি দোসররা যে গণহত্যা আর ধবংসযজ্ঞ চালিয়েছে তার চিহ্ন এখনও ছড়িয়ে রয়েছে দেশের গ্রাম-গঞ্জে। এই গণহত্যার জন্য তাদেরকে বিচারের মুখোমুখি করতে হবে। একই সাথে গণহত্যা ঘটনার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায় করতে হবে।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের আওতায় এনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেখিয়েছেন অন্যায় করে কেউ পার পায় না। রবিবার খুলনা বিএমএ ভবনে গণহত্যা-নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা কেন্দ্র আয়োজিত প্রথম মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক পাঠক্রমের ‘সনদ বিতরণ ও ১৯৭১: গণহত্যা-নির্যাতন নির্ঘন্ট গ্রন্থমালার মোড়ক উন্মোচন’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর ট্রাস্টের সভাপতি মুনতাসির মামুন এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন ট্রাস্টের সম্পাদক ডা. শেখ বাহারুল আলম। অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে যে সাম্প্রদায়িক শক্তির উত্থান ঘটছে, হলি আর্টিজনে হামলার মত জঘন্য হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে তা’ মানুষ নামের দানবদের পক্ষেই সম্ভব। এই সব দানবদের পেছনে রয়েছে এক ধরণের অপশক্তি, যারা আমাদের তরুণদের মস্তিষ্ককে ব্যবহার করে তাদের বিভ্রান্ত করছে।

এই যে অপশক্তি মানুষের মানবিক চেতনাকে নিঃশেষ করে দিচ্ছে, তাদের খুঁজে বের করতে হবে। অনুষ্ঠানে গবেষণা কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ ৩০ জনকে সনদ প্রদান করা হয়।