না ফেরার দেশে হারিয়ে গেল শেফালীর সদ্য ভূমিষ্ঠ কন্যা সন্তান

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলায় সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ শেফালী বেগমকে গরু চুরির মিথ্যা অভিযোগে গাছে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। নির্যাতনের শিকার হয়ে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই কন্যা সন্তানের জন্ম হওয়ায় নবজাতকের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছিলেন চিকিৎসক।

বাঁচানো সম্ভব হলনা নির্যাতনের শিকার সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ শেফালী বেগমের সদ্য ভূমিষ্ঠ কন্যা সন্তান। বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে মারা যায় সে। রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডের কর্তব্যরত নার্স লাভলী বেগম নবজাতকের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জন্মের পর গাইনোকোলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. ফেরদৌসি সুলতানা জানান, সময়ের ৯ সপ্তাহ আগে ৯০০ গ্রাম ওজন নিয়ে শিশুটির জন্ম হয়।