কুড়িগ্রামে গরু চুরির অপবাদে ৩ যুবককে জুতাপেটা

দেড় বছর আগে চুরি যাওয়া গরু চুরির অপবাদে ৩ যুবককে বেধড়ক জুতাপেটা ও ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে গ্রাম্য মাতব্বররা। এছাড়া রায় অনুযায়ী প্রত্যেককে ১০ ঘা করে জুতাপেটা করা হয়। আর ছেলের জুতাপেটা দেখে জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন বৃদ্ধা মা সাহেদা বেগম।

মঙ্গলবার দুপুরে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার চর বামনেরচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়, দেড় বছর আগে চর বামনেরচর গ্রামের কবীর হোসেনের একটি ও পার্শ্ববর্তী মোল্লারচর গ্রামের নুর হোসেনের একটিসহ ২টি গরু চুরি যায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তারা গরু দুটির কোনো সন্ধান পাননি। সম্প্রতি চর বামনেরচরের জাইদুল, সাখাওয়াত ও মোল্লারচরের রবিউলকে সন্দেহ করেন ওই গ্রামের নব্য মাতব্বর জিন্নাত আলী ওরফে জিন্নাহ আর্মি।

অতঃপর মঙ্গলবার সালিশ হলে ওই ৩ যুবক চুরির ঘটনাটি অস্বীকার করে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য শাহ আলম, জিন্নাত আলী ওরফে জিন্নাহ আর্মি, আবু কালাম, মিন্নাছ আলী, নওশাদ আলী, সোনা মিয়া ও ইউনুছ আলী মাস্টার। এ বিষয়ে জানতে চাইলে জিন্নাত আলী ওরফে জিন্নাহ আর্মি বলেন, তাদের ধরে নিয়ে আসার পর সালিশে সবার সামনে তারা চুরির কথা স্বীকার করেছে।

মোঃ মনিরুজ্জামান, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি