গেস্ট হাউসে তরুণীকে ধর্ষণের দায়ে দুই বন্ধু গেফতার

রাজশাহী নগরীতে গেস্ট হাউসে নিয়ে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার দুই বন্ধু সামশুল আলম বাদশা (৩৫) আবু ফায়েজ নাহিদকে (৩০) রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মঙ্গলবার বিকেলে তাদের রিমান্ডে নেয় নগরীর শাহমখদুম থানা পুলিশ। এর আগে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহীর মহানগর মূখ্য হাকিম আদালতের বিচারক জাহিদ হোসেন প্রত্যেকের দুই দিনের করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পাঁচ দিনের রিমান্ড চেয়ে গত ৩ আগস্ট আদালতে আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নগরীর শাহমখদুম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আনোয়ার আলী তুহিন। সামশুল আলম বাদশা ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্স (ইউআইটিএস) এর রাজশাহী শাখার সাবেক শিক্ষক। তার বন্ধু আবু ফায়েজ নাহিদ রাজশাহীর গৌরহাঙ্গা এলাকার ইজিটাস কম্পিউটার দোকানের মালিক।

ফেসবুকে ওই তরুণীর সঙ্গে পরিচয় হয় তাদের। রাজধানীর ধানমন্ডিতে অবস্থিত ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে বিবিএ পাস করা ওই তরুণীর বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার নামোশংকরবাটি এলাকায়। গত ৩১ জুলাই ২৫ বছর বয়সী ওই তরুণী চিকিৎসার জন্য রাজশাহীতে আসেন। ওদিনই নগরীর নওদাপাড়া এলাকার গ্রিন গার্ডেন নামের একটি রেস্ট হাউসে নিয়ে গিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন ওই দুই বাদশা ও নাহিদ। এ নিয়ে ওই দিনই নগরীর শাহমখদুম থানায় মামলা করেন পাষবিকতার শিকার ওই তরুণী।

রাজশাহী মেডিকলে কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ওই তরুণীর ডাক্তারি পরীক্ষা হয়েছে। আদালতের নির্দেশে নিজের জিম্মায় রয়েছেন ওই তরুণী।