যুদ্ধ অপরাধীদের বিচার করা আমার জীবনের সবচেয়ে বড় সাফল্য: অ্যার্টনী জেনারেল

এটর্নি জেনারেল মাহাবুবে আলম বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলা ও যুদ্ধাপরাধী মামলার সংঙ্গে যুক্ত ছিলাম। আমি সেই মামলা সুষ্ঠু ও সফল ভাবে পরিচালনা করছি। এ বিচার আমার জীবনের সবচেয়ে বড় সাফল্য। শনিবার মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার চারটি স্কুলে বই বিতরণ শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, আমি আগামী নির্বাচনের প্রত্যাশা নিয়ে মুন্সীগঞ্জ-২ আসনে বিচরণ করছি। যদি দল আমাকে মনোনয়ন দেয় তাহলে আমি জনগণের সেবা করার সুযোগ পাবো। আমি এর পূর্বেও প্রবীন আ’লীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম ও জাতীয় নির্বাচনে জেনারেল ওসমানীর পক্ষে নির্বাচন করেছি। শুক্রবার লৌহজং উপজেলা কার্যালয়ে ওয়ার্কিং কমিটির সভার হট্রোগোল প্রসংগে এটর্নি জেনারেল বলেন, গতকালের ঘটনা প্রতিহত করা নিন্দনীয়। তৃণমূল নেতারা আমার সাথে আছে। কিছু লোক আমার বিরুদ্ধে থাকবে এটাই স্বাভাবিক। এ নিয়ে আমি ভাবিনা। দল যাকে মনোনয়ন দিবে, সে আওয়ামীলীগের নির্বাচন করবে।

এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মেডিকেল কলেজের ড. আবু ইউসুফ ফকির, অতিরিক্ত ডেপুটি এটর্নি জেনারেল মো. মাছুদ হাসান চৌধুরী পরাগ, এড. সুভাষ চন্দ্র তরফদার, এড. মো. ছগির হোসেন, অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় পর্ষদের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, বিশিষ্ট সংগঠক নাছির উদ্দিন জুয়েল, কনকশার ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশন লৌহজং কেন্দ্রের সমাজ ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মো. নাছিম আলম কাজল, মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি রাসেল মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক ভবতোষ চৌধুরী নুপুর, এড. লাবলু মোল্লা, এড. সেতু ইসলাম, এড. জাহাঙ্গীর আলম মঈনউদ্দিন সুমন, জসিম উদ্দিন দেওয়ান, টঙ্গীবাড়ী সোনারং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক স্বপন মাঝি প্রমুখ।

শনিবার সকাল ১০ টা থেকে দুপুর পর্যন্ত মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার হলুদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, ব্রক্ষ্মনগাঁও বহূমুখী উচ্চ বিদ্যালয়, যশলদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, মেদিনীমন্ডল আনোয়ার চৌধুরী উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার জন্য বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের দলিল পত্র, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনীসহ বিভিন্ন গুনি লেখকদের বই প্রধান শিক্ষকদের হাতে তুলে দেন মাহবুবে আলম।

মুন্সীগঞ্জ । মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি