কুড়িগ্রামে চাচাকে রামদা দিয়ে কুপিয়েছে ভাতিজা

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে চাচাকে কুপিয়েছে ভাতিজা। মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার সীমান্তবর্তী নন্দিরকুটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

স্থানীয়রা জানায়, নন্দিরকুটি গ্রামের সামাদের ছেলে সাপুল আমন ধানের চারা রোপণের জন্য জমিতে এলে তার চাচা জামাত আলী বাধা প্রদান করেন। এ নিয়ে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে সাপুল তার চাচা জামাতকে রামদা দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। এ সময় অন্যরা এগিয়ে এলে হামলায় আহত হন নন্দিরকুটি গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য তৈয়ব আলীর স্ত্রী ময়না বেগম, মজিত মিয়া, সামিনা বেগম ও মমিনা বেগম। মুমূর্ষু অবস্থায় জামাত আলীকে উদ্ধার করে ফুলবাড়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশংকাজনক। বুধবার সকাল সাড়ে ৭টা পর্যন্ত এ ঘটনায় কোন মামলা হয়নি।

ফুলবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খন্দকার ফুয়াদ রুহানীর সাথে কথা হলে তিনি জানান, ঘটনাটি আমি শুনেছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত পুলিশের কাছে কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মোঃ মনিরুজ্জামান, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি