পিটিআই প্রধান ইমরান খানের বিরুদ্ধে অশ্লীল মেসেজ পাঠানোর অভিযোগ

পাকিস্তানে সাম্প্রতিক সময় যে রাজনৈতিক অচলাবস্থা রয়েছে, তার মধ্যেই পাকিস্তান তেহরিক–ই–ইনসাফ (পিটিআই) দলের প্রধান ও সাবেক তারকা ক্রিকেটনার ইমরান খানের বিরুদ্ধে দলের নেত্রীদের অশ্লীল মেসেজ পাঠিয়ে নানাভাবে হেনস্থা করার অভিযোগ উঠেছে। এক সংবাদ সম্মেলনে ইমরানের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ তুলে দল থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন পিটিআই নেত্রী আয়েশা গুলালি।

পিটিআই প্রধান ইমরান নাকি তাঁকে এমন ‘নোংরা মেসেজ’ পাঠিয়েছেন যা তিনি মুখে উচ্চারণও করতে পারবেন না, এমনই অভিযোগ দক্ষিণ ওয়াজিরিস্তানের আদিবাসী এলাকার এই নেত্রীর। পিটিআই দলে মহিলাদের কোনও সম্মান নেই জানিয়ে আয়েশা দাবি করেন, “আমার কাছে আত্ম মর্যাদাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আমি কখনই এরসঙ্গে আপোস করতে পারব না”। পাকিস্তানের দক্ষিণ ওয়াজিরিস্তান প্রদেশের ওই নেত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে তদন্তেরও দাবি জানিয়েছেন। সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খানের ব্ল্যাকবেরি মোবাইল ফোনসেট পরীক্ষা করলেই তার অভিযোগে সব তথ্যপ্রমাণ পাওয়া যাবে বলেও দাবি করেন আয়েশা। যদিও পার্টির অন্য সদস্যরা আয়েশার সেই অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছেন। তাদের দাবি, আয়েশা বহুদিন ধরেই পাকিস্তানের সদ্য প্রাক্তন হওয়া প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের দল পিএমএল (এন)-এ যোগ দেওয়ার পরিকল্পনা করছিলেন। সেই জন্যেই তিনি ইমরান খানকে হেনস্থা করার জন্যে এই ধরনের ভিত্তিহীন অভিযোগ এনেছেন।

এদিকে আয়েশার অভিযোগ, ইমরানের দলে নারীদের কোনও সম্মান দেওয়া হয় না। তার প্রতিবাদেই তিনি দল ছাড়ছেন। তিনি আরও বলেন, ২০১৩ সালের অক্টোবর থেকে তাকে নানা ধরনের অশালীন মেসেজ পাঠাচ্ছেন ইমরান। কোনও মহিলার যার সামান্য সম্মান রয়েছে, কেউই মেসেজে যে ধরনের শব্দ ব্যবহার করা হয়েছে, সেটা সহ্য করতে পারবেন না।

এদিকে আয়েশার অভিযোগের বিষয়ে মুখ খোলেননি ইমরান খান। তবে পিটিআই নেতাদের দাবি, ক্ষমতাসীন পাকিস্তান মুসলিম লীগ (পিএমএল-এন) দলে যোগ দেয়ার জন্য আয়েশা অসত্য অভিযোগ করেছেন। পিটিআই মুখপাত্র ফয়াদ চৌধুরীর অভিযোগ, আয়েশা গুলালি পিএমএল-এনের টাকার কাছে বিক্রি হয়ে গিয়েছেন। এটা এই দলের পুরনো খেলা। তারা এখন আয়েশাকে  ব্যবহার করছে। তবে আয়েশা এ অভিযোগ খারিজ করে দিয়েছেন। তিনি বলেন, আমি কোনো দলে যুক্ত হচ্ছি না। তবে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ নারীদের সম্মান দিতে জানেন।