জ্ঞান ভিত্তিক সমাজ গোড়তে সারা দেশে ১২টি আইটি পার্কের প্রকল্প

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ট নেতৃত্বে ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক মাননীয় উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ২০২১ সালের মধ্যে জ্ঞান-ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা ও ডিজিটাল ইকোনমি গড়ে তোলার যে প্রচেষ্টার লক্ষে খুলনা, বরিশাল, রংপুর, চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, কক্সবাজার, ময়মনসিংহ, জামালপুর, নাটোর, গোপালগঞ্জ, ঢাকা ও সিলেট জেলায় ১২টি আইটি পার্ক গড়ে তোলা হচ্ছে। এই কার্যক্রম ত্বরান্বিত করতে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সাথে মতবিনিময় করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ।

জুলাই ২০১৭ খ্রি- জুন ২০২০ খ্রি মেয়াদে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে আমরা নিরলসভাবে কাজ করে চলেছি। আজ সকালে রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপার্সন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্য প্রকল্পের পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তি খাতে জেলা পর্যায়ে প্রয়োজনীয় অবকাঠামো গড়ে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ এই প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, একুশ শতকের চাহিদা মেটাতে দেশে ১২টি আইটি পার্ক গড়ে তোলা হচ্ছে। যার মধ্যে যশোরে শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক নির্মাণের কাজ সমাপ্তির পথে। এ পার্ক সংলগ্ন স্থানে গড়ে তোলা হয়েছে কন্টেইনার ভিত্তিক ডিজাস্টর রিকভারি সেন্টার যা এশিয়ায় প্রথম।

প্রকল্পের আওতায় সংশ্লিষ্ট জেলাগুলোতে আইটি পার্ক (হাই-টেক পার্ক) গড়ে তোলা হবে। ১ হাজার ৭৯৬ দশমিক ৪০ কোটি টাকা ব্যয়ের এই প্রকল্পে ভারতের দ্বিতীয় লাইন অব ক্রেডিট থেকে ১ হাজার ৫৪৪ কোটি ও সরকারি তহবিল থেকে ২৫২ দশমিক ৪০ কোটি টাকা অর্থের যোগান দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী ২০১৫ সালের ১৫ মার্চ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ পরিদর্শনকালে ‘আইসিটি ব্যবহারের মাধ্যমে ব্যাপক কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে দেশের প্রতিটি বিভাগে এবং পরবর্তীতে প্রতিটি জেলায় পর্যায়ক্রমে হাই-টেক পার্ক স্থাপন’ করার নির্দেশনা প্রদান করেছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় জেলা পর্যায়ে আইটি পার্ক/হাই-টেক পার্ক স্থাপন শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়া হয়।