আওয়ামী লীগ সরকারের রহমতেই তুফানরা অপকর্ম করছেঃ ড. মঈন খান

আওয়ামী লীগ সরকারের রহমতেই তুফানরা এ ধরনের (ধর্ষণ) অপকর্ম করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান। বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি একথা বলেন।

মঈন খান বলেন, আমার একটাই প্রশ্ন বাংলাদেশকে কোন রাহু গ্রাস করল? আমরা কোন দেশে বসবাস করছি? আমরা কি আফ্রিকার জঙ্গলে বাস করছি? নাকি সভ্য দেশে বাস করছি? এটা কীভাবে সম্ভব, একজন কিশোরীকে কলেজে ভর্তির প্রলোভন দেখিয়ে তার সম্মানহানি করা হয়েছে। শুধু একবার নয় বারবার ধর্ষণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, পৃথিবীর কোনো দেশে সভ্যতার লেশমাত্র থাকলে এভাবে প্রকাশ্যে এমন কাজ কেউ করতে পারে না। যদি না তাদের ওপর সরকারের রহমত না থাকে। এই রহমত না থাকলে কেউ (কোনো নেতাকর্মী) এ ধরনের অপকর্ম করার সাহস পেত না। বিএনপির এই নীতিনির্ধারক বলেন, আজকে যে সাজানো সরকার ও তাদের বানানো বিরোধী দলের নেত্রীও নারী। সংসদের স্পিকারও নারী। কয়েকদিন আগে যে ঘটনা ঘটেছে এরজন্য সরকারের যদি সামান্য পরিমাণ আত্মসম্মানবোধ থাকে তবে সরকারের এই মুহূর্তে পদত্যাগ করা উচিত।

প্রধান বিচারপতির বক্তব্য উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশের প্রধান বিচারক কথা বলতে পারেন না তাহলে আমরা বিরোধী দল কীভাবে কথা বলব? ‘সরকারের শক্তি বন্দুকের, অস্ত্রের, সন্ত্রাসের। সরকারের বিরুদ্ধে যে কথা বলবে হুমকি-ধামকি দিয়ে তার মুখ বন্ধ করে দেবে। অথবা তাকে গুম, খুন, গায়েব বা জেলে নিয়ে যাবে। এভাবে একটি দেশ চলতে পারে না’। ‘বগুড়ায় চাঞ্চল্যকর কিশোরী ধর্ষণ ও মা-মেয়েকে নির্যাতনের নিন্দা, এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃতদের বিচারের দাবিতে’ এই মানববন্ধনের আয়োজন করে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মহিলা দল।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আফরোজা আব্বাসের সভাপতিত্বে এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হেলেন জেরিন খান প্রমুখ।