বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডে খালেদার ভূমিকা কী ছিলঃ হাছান মাহমুদ

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ভূমিকা কী ছিল তা বের করতে রাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ। পাশাপাশি ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনায় খালেদা জিয়ার বিচার দাবি করেছেন তিনি। জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মঙ্গলবার দুপুরে অনুষ্ঠিত এক মানববন্ধনে তিনি এ দাবি জানান। ২১ আগস্টের হামলা ও পরিকল্পনায় জড়িতদের দ্রুত বিচারের দাবিতে ‘২১ আগস্ট বাংলাদেশ’ এ কর্মসূচির আয়োজন করে।

হাছান মাহমুদ বলেন, ২১ আগস্টের ন্যক্কারজনক গ্রেনেড হামলার বিচারে কেন এত দেরি হচ্ছে জানি না। খালেদা জিয়ার সরকারের প্রত্যক্ষ পৃষ্ঠপোষকতা এবং তারেক রহমানের পরিচালনায় এ হামলা হয়েছিল। তিনি বলেন, ওই হামলার জন্য কেবল তারেক রহমান এবং তার সাঙ্গপাঙ্গরাই দায়ী নয়, খালেদা জিয়ার ওপরও এর দায় বর্তায়। কারণ তৎকালীন রাষ্ট্রযন্ত্র সহায়তা করেছিল এ হামলায়। সে জন্য খালেদা জিয়াকেও বিচারের আওতায় আনতে হবে।

১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের বিচারের বিষয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, এ বিচারের রায়ও পুরোপুরি কার্যকর হয়নি। আর জিয়াউর রহমানসহ যারা এর পেছনে ছিলেন, তাদেরও বিচার করতে হবে। তাদের বিচার না করলে ইতিহাসে কেবল খুনীদের নাম থাকবে। এতে ইতিহাস কলঙ্কমুক্ত হবে না।

মানববন্ধনে মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাধ্যমে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বকে চিরতরে শেষ করে দেয়ার ষড়যন্ত্র হয়েছিল। আবারও কিভাবে ষড়যন্ত্র করা যায়,সেই চেষ্টা করছে তারা। তিনি বলেন, ২১ আগস্টের হামলাকারীদের বিচারের মাধ্যমে শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। বাংলার মাটিতে তাদের ঠাঁই হবে না।

মানববন্ধনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, বাংলাদেশকে পিছিয়ে দেয়ার জন্য ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়েছিল। ২১ আগস্টের হামলাও হয়েছিল একই উদ্দেশ্যে। ১৫ আগস্ট ও ২১ আগস্ট একই সূত্রে গাঁথা।