নাট্যকার, নাট্য নির্দেশক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শাহজাহান শাহ্ গুরুতর অসুস্থ্য

দিনাজপুরের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের অভিনেতা, নাট্যকার, নাট্য নির্দেশক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শাহজাহান শাহ্ গুরুতর অসুস্থ্য। গণঅভ্যুত্থান, মুক্তিযুদ্ধ সহ জীবনের প্রতিটি সময়ে নাটকের মাধ্যমে অন্যায়ের প্রতিবাদ করেছেন সেই ব্যক্তিটিই এখন লড়ছেন নিজের শরীরে থাকা দুরারোগ্য ক্যান্সারের (লিভার) সাথে। গুনি এই শিল্পী উন্নত চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ্য হয়ে আবার ফিরে আসুক সংস্কৃতি অঙ্গনে এমন কামনা করেছেন দিনাজপুর সাংস্কৃতিক ব্যক্তিরা।

১৯৪৬ সালের ২১ ফেব্রুয়ারী দিনাজপুরের বিরল উপজেলার মোখলেসপুর গ্রামে জন্ম হয় শাহজাহান শাহের। ক্লাস সেভেনে পড়ার সময়ে দিনাজপুরের জিলা স্কুলে থাকাকালীন সময়ে প্রখ্যাত নাট্যকার ও পরিচালকদের নাটকে অংশগ্রহন করে খ্যাত পান তিনি।

ততকালীন সুরেন্দ্রনাথ কলেজে (এস,এন কলেজ) পড়াকালীন সময়ে তিনি নাটকে অভিনয়, গ্রন্থনা, পরিচালনা, উপস্থাপনার পাশাপাশি লিখে ফেলেন প্রেম-প্রসহনমূলক হাসির নাটক ‘কার টোপে’। এই নাটক লেখার পর তিনি নাট্যমহলে বেশ খ্যতিমান হয়ে উঠেন। বিভিন্ন খ্যতিমান নাট্যকারের নাটকে অভিনয় ও নিজের নাট্য লেখায় তিনি প্রচুর সুখ্যাতি অর্জন করেন।

১৯৬৯ সালের গণঅভ্যুত্থান ও ৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময়ে মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দীপনা যোগাতে স্বাধীনতার স্বপক্ষে প্রচারাভিযান নাটক পরিবেশন করে তিনি প্রশংসনীয় ভুমিকা রাখেন। শাহজাহান শাহ্র লেখা নাটক একাধিকবার বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতারে প্রচারিত হয়েছে। সাংস্কৃতিক অঙ্গন তথা নাট্যাঙ্গনে অবদান রাখায় তিনি বিভিন্ন পুরস্কার ও সম্মাননায় ভুষিত হয়েছে।

গত প্রায় দেড় মাস পূর্বে তিনি অসুস্থ্য হয়ে পড়লে পরীক্ষা-নিরীক্ষায় তার লিভার ক্যান্সার ধরা পড়ে। ইতিমধ্যে তাকে ভারতে নিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য। বর্তমানে দিনাজপুরে অবস্থান করলেও আগামী কদিন পর আবারও তাকে ভারতে নিয়ে যাওয়া হবে। পঞ্চাশ বছর ধরে দিনাজপুরের শিল্প সাংস্কৃতিক অঙ্গনে বিচরণ করা গুনি এই ব্যক্তি সুস্থ্য হয়ে আবারও ফিরে আসুক সাংস্কৃতিক জগতে এমনটিই প্রত্যাশা সকলের।

 

ফখরুল হাসান পলাশ, দিনাজপুর প্রতিনিধি