ঝুলন্ত বাস থেকে নেমে নিজের প্রান রক্ষা করলেন ২৬ হজযাত্রী

অানন্দ সুপার নামে লক্কড়ঝক্কড় একটি মিনিবাস। রাজধানীর আশকোনা হজ ক্যাম্প থেকে বাসটি ২৬ হজযাত্রীকে নিয়ে আজ সোমবার দুপুর ১২টার দিকে রওনা দেয় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের দিকে। তখন বিমানবন্দরের বহির্গমন টার্মিনালে যাওয়ার পথে ড্রাইভওয়েতে ওঠার সময় বাসে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেয়। এতে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন।

ড্রাইভওয়ের পাশে রেলিং ভেঙে ঝুলতে থাকে। আরেকটু হলেই বাসটি ১২ ফুট নিচে পড়ে যেত। ঝুলন্ত অবস্থায়ই হজযাত্রীরা বাস থেকে নেমে প্রাণে রক্ষা পান। প্রায় এক ঘণ্টা পর বিমানবাহিনীর রেকারের সাহায্যে বাসটি উদ্ধার করে। পরে বাসটিকে বিমানবন্দর থানায় পাঠানো হয়।এ ঘটনায় শাহজালাল বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বিমানবন্দর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছে।

বাসটি নিচ থেকে প্রায় ১২ ফুট উঁচুতে ঝুলে থাকার তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন শাহজালাল বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন কাজী ইকবাল করিম। তিনি বলেন, ২৬ জন হজযাত্রীর আজ দুপুরে সৌদি এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইটে জেদ্দা যাওয়ার কথা ছিল। তামান্না পার্ক নামের একটি হজ এজেন্সি হজযাত্রী বহনের জন্য বাসটি ভাড়া করে। বাসটি অনেক পুরোনো। কলকবজা নড়বড়ে। বিমানবন্দরের ড্রাইভওয়ে ঢালু পথ দিয়ে ওঠার ক্ষমতাও বাসটির ছিল না। এটি রেলিংয়ে ঝুলে ছিল। এ সময় হজযাত্রীরা বাস থেকে নিরাপদে নেমে যেতে সক্ষম হন। বাসটি উদ্ধারে বিমানবাহিনী, ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) ও র‍্যাবের সহযোগিতা চাওয়া হয়। এসব বাহিনী থেকে তিনটি রেকার পাঠানো হয়। বিমানবাহিনীর রেকারটি বাসটি নামিয়ে আনতে সক্ষম হয়। তবে বাসের চালক কামরুল হোসেনের লাইসেন্স ছিল না। এ ছাড়া বাসের ফিটনেস ও রেজিস্ট্রেশন ছিল না।

বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আজম মিয়া বলেন, বাসটির যান্ত্রিক কোনো সমস্যা ছিল কি না, তা পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। বাসচালকের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।