চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের শিকার, ধর্ষক ধরা ছোয়ার বাহিরে

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে চতুর্থ শ্রেণী এক ছাত্রী পাশবিক নির্যাতনের শিকার হওয়ার চারদিন পর মামলা নিয়েছে পুলিশ। মামলা নথিভুক্ত হওয়ার দশ দিন অতিবাহিত হলেও ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশ এখন পর্যন্ত ধর্ষক শহিদুলকে আইনের আওতায় আনতে পারেনি।

উল্লেক্ষ্য, গত ১৭ জুলাই শিশুটি পাশবিক নির্যাতনের শিকার হয়। বিভিন্ন দেন-দরবার শেষে ২০শে জুলাই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা নথিভুক্ত হয়। মামলা নম্বর-২১। ডাক্তারী পরীক্ষায় নির্যাতনের আলামত পাওয়া গেছে বলে জানা গেছে। ধর্ষক ধরা ছোয়ার বাইরে থাকায় আতঙ্কে রয়েছে নয় বছর বয়সী শিশুটি ও তার পরিবার। শিশুটির পিতা জানান, ঘটনার পরে কয়েক দিন শিশুটিকে উপজেলার জয়মনিরহাটে এক আত্মীয়ের বাড়িতে রাখা হয়। ভয়ে শিশুটি সেখান থেকে নিজ বাড়িকে আসতে চায়নি। অনেক বুঝিয়ে তাকে বাড়িতে আনা হয়েছে। অপর দিকে এই ঘটনায় শিশুটির লেখাপড়া বন্ধ হয়ে পড়েছে। ন্যায় বিচারের প্রত্যাশায় দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন শিশুটির পিতা।

ভূরুঙ্গামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাপস চন্দ্র পন্ডিত জানান, ধর্ষক শহিদুল পলাতক থাকায় তাকে গ্রেফতার করতে কিছুটা বিলম্ব হচ্ছে। তবে তাকে দ্রুত আইনের আওতায় আনার সব রকম প্রচেষ্ঠা অব্যাহত রয়েছে।

মোঃ মনিরুজ্জামান, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি