সংখ্যালঘুর উপর হামলাকারীরা জামিনে মুক্ত, বাদিকে মামলা তুলে নেয়ার হুমকি

কুড়িগ্রামের উলিপুরে জমি-জমা বিরোধকে কেন্দ্র করে সংখ্যালঘুর বাড়িতে হামলা ও লুটপাটের ঘটনার মামলায় আসামী জামিনে এসে সংখ্যালঘু পরিবারকে মামলা তুলে নেয়ার ভয়ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে।

স্থানীয় ও মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ধরনীবাড়ী ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামের পল্লী চিকিৎসক তারকেশ্বর পান্নাত গং এর সাথে একই গ্রামের কৃষ্ণ গোপাল গং এর দীর্ঘদিন থেকে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এমতাবস্থায় বিমল চন্দ্র গং এর নিকট ৪২ শতক বিরোধপূর্ণ জমি পার্শ্ববর্তী নাটাবাড়ী গ্রামের আনিছুর রহমান ক্রয় করেন। এই জমি পান্নাত গং আমন ধানের চারা রোপন করার খবর পেয়ে আনিছুর রহমান লোকজন নিয়ে বাঁধা প্রদান করলে এ সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়।

গত শুক্রবার সকাল অনুমান সাড়ে ৯ টায় আনিছুর রহমান তার পক্ষীয় লোকজন নিয়ে বিরোধপূর্ণ জমি দখল করতে আসলে পান্নাতের স্ত্রী জয়ন্তী রানী (৪৮) ও তার মা রাধা রানী (৬৫) বাঁধা দিলে আনিছুর ও তার লোকজন দুজনকে মারপিট করে গুরুত্বর জখম করে। এ সময় তারা হামলা চালিয়ে বাড়ি ঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটায়। পরে স্বজনরা আহত জয়ন্তী ও রাধা রানীকে উদ্ধার করে উলিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।

এ ঘটনায় পান্নতের পুত্র জীবন কৃষ্ণ বাদী হয়ে আনিছুর রহমানসহ ১৩ জনকে আসামী করে মামলা করেন। যার নং-৩৫, তারিখ-২১/০৭/২০১৭ ইং। সোমবার জামিনে মুক্ত হয়ে পরিবারটির উপর আসামীগণ মামলা তুলে নেয়ার ভয়ভিতি ও প্রাণনাশের হুমকি প্রদর্শণ করে। পরিবারটি বর্তমানে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে। তারা পুলিশ প্রশাসনের কাছে নিরাপত্তার দাবী জানিয়েছেন।

মোঃ মনিরুজ্জামান, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি