সিএমএম আলী হোসাইনকে অন্যত্র বদলির প্রস্তাব পাঠিয়েছে আইন মন্ত্রণালয়

আইন মন্ত্রণালয়ের এক প্রস্তাব পাঠানো বরিশালের মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) মোহাম্মদ আলী হোসাইনকে অন্যত্র বদলির জন্য। প্রস্তাবটি ২৫ জুলাই মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টে এসে পৌঁছেছে। সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার (প্রশাসন ও বিচার) মো. সাব্বির ফয়েজ সংবাদমাধ্যমকে এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

সাব্বির ফয়েজ বলেন, বরিশালের সিএমএম মোহাম্মদ আলী হোসাইনকে অন্যত্র বদলির জন্য আইন মন্ত্রণালয়ের একটি প্রস্তাব সুপ্রিম কোর্টে এসেছে। এখন সংশ্লিষ্ট কমিটি প্রক্রিয়া অনুসারে বিষয়টি বিবেচনা করবে।

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলায় ইউএনওর দায়িত্বে থাকার সময় ২০১৭ সালের স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে একটি আমন্ত্রণপত্র প্রকাশ করা হয়। এই আমন্ত্রণপত্রের পেছনের পাতায় বঙ্গবন্ধুর একটি ছবি ছাপা হয়, যেটি পঞ্চম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর আঁকা। এ ঘটনায় ইউএনও তারিক সালমনকে আলাদাভাবে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেন জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনার। পরে সেই নোটিশের জবাব দিলে তা যথাযথ হয়নি মতামত দিয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেছিলেন তারা।

পরে বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক ও জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ওবায়েদুল্লাহ সাজু ৭ জুন বরিশাল মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে ৫ কোটি টাকার মানহানির মামলা করেন। ওই মামলায় ১৭ জুলাই আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে বিচারক আবেদন নামঞ্জুর করে ইউএনও তারিক সালমনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এ ঘটনায় জেলা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক পদ থেকে সাময়িক বহিষ্কৃত হন মামলার বাদী সৈয়দ ওবায়েদুল্লাহ। এ ছাড়া ঘটনার দিন বরিশালের আদালতে দায়িত্বরত পুলিশের ছয় সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এ ছাড়া ২৩ জুলাই রোববার মামলা খারিজের আদেশ দেন বরিশালের অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম অমিত কুমার দে।