খাতা দেখার বিশেষ মূল্যায়নের কারণেই ফলের এই পার্থক্য হয়েছে বলে জানালেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাসের হার ৬৮ দশমিক ৯১ শতাংশ। যা গতবারের পরীক্ষার ফলাফলের চেয়ে খারাপ হয়েছে।

আজ রবিবার সকাল ১০টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর হাতে ফলের অনুলিপি তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। এসময় এ বছরের পরীক্ষার ফলাফল কেন খারাপ হয়েছে, সেই কারণের ব্যাখ্যা দেন মন্ত্রী। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “এবার পাস কম করায় আমরা বিস্মিত হইনি। পরীক্ষার খাতা ভালো ভাবে মূল্যায়ন করার কারণেই এ ফল হয়েছে। “

তিনি বলেন, ‘গত মাধ্যমিক (এসএসসি) পরীক্ষায়ও একই ঘটনা ঘটেছিল। এসএসসিতে গতবারের চেয়ে ৮ শতাংশ পাস করেছে। সে ক্ষেত্রে তুলনামূলকভাবে এইচএসসিতে কম খারাপ হয়েছে। এটাকে আমি সাফল্য বলে মনে করি। খাতা দেখার বিশেষ মূল্যায়নের কারণেই ফলের এই পার্থক্য হচ্ছে। এতে বিস্মিত হওয়ার কিছু নেই, এটা আমাদের সাফল্য। ভবিষ্যতে এটা ধীরে ধীরে একটা স্থির অবস্থায় এসে পড়বে। ’

শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, ‘খাতা দেখার এই পদ্ধতিতে সবাই একমত হয়েছে। সংবাদও এ ব্যাপারে আমাদের সাহায্য করেছে। এবার ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা ভালো করেছে। ছেলেদের চেয়ে মেয়েরা এবার ২ দশমিক ৮২ ভাগ বেশি পাস করেছে। মাদ্রাসা, কারিগরিসহ ১০টি শিক্ষা বোর্ডের আওতায় এবার পরীক্ষায় অংশ নেয় আট হাজার ৮৬৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট ১১ লাখ ৮৩ হাজার ৬৮৬ পরীক্ষার্থী। এর মধ্যে পাস করেছে ছয় লাখ ৪৪ হাজার ৯৪২ জন। এবার মোট জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩৩ হাজার ২৪২ জন।

উল্লেখ্য, এবার গতবারের চেয়ে প্রায় ৬ শতাংশ শিক্ষার্থী কম পাস করেছে।