প্রশাসন এখন উন্নয়নমুখী ও জনকল্যাণমুখীঃ রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সুশাসন নিশ্চিত করে নাগরিক সেবা সহজ, সুলভ, স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতামূলক করতে অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করার জন্য প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, প্রশাসন এখন উন্নয়নমুখী ও জনকল্যাণমুখী। এখন আর নিজেদেরকে জনগণের শাসক ভাবার কোনো অবকাশ নেই। মানুষ সিভিল সার্ভেন্টদের কাছে সুশাসন ও সেবা আশা করে।

আগামীকাল রোববার জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস উপলক্ষে আজ শনিবার এক বাণীতে তিনি এ আহবান জানান। দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি প্রজাতন্ত্রের সব কর্মচারীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।দিবসটি উপলক্ষে জনপ্রশাসনে উদ্ভাবনী ধারণাকে কাজে লাগিয়ে নাগরিক সেবা সহজীকরণের স্বীকৃতিস্বরূপ ‘জনপ্রশাসন পদক-২০১৭’ প্রদান করা হচ্ছে জেনে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করে পদকপ্রাপ্তদের আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োজিত সিভিল সার্ভেন্টগণ সরকারি কার্যসম্পাদনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকেন। সংবিধানের আলোকে সিভিল সার্ভিস মূলত বিবিধ আইন-কানুন, বিধি-বিধান, পরিপত্র, আদেশ-নিষেধ দ্বারা পরিচালিত। ব্রিটিশ আমলের উত্তরাধিকার বর্তমান সিভিল সার্ভিসে যুগের চাহিদা অনুযায়ী গুণগত অনেক পরিবর্তন এসেছে। তিনি বলেন, সুশাসন নিশ্চিত করতে হলে নাগরিক সেবা সহজ, সুলভ, স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতামূলক করতে হবে। যার কাছে যেটুকু সেবা প্রদানের সুযোগ রয়েছে সেটুকু সঠিক ও সর্বোত্তমভাবে নাগরিকদের প্রত্যাশা অনুযায়ী প্রদান করাই সিভিল সার্ভেন্টদের লক্ষ্য হওয়া উচিৎ।

আবদুল হামিদ বলেন, সরকার সিভিল সার্ভিসকে জনবান্ধব ও জনকল্যাণমুখী করতে প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন, দেশে-বিদেশে প্রশিক্ষণের সুযোগ সৃষ্টি, যথাসময়ে পদোন্নতি, আন্তঃক্যাডার বৈষম্য দূরীকরণ, বেতন ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে। এ উদ্যোগ জনপ্রশাসনে গতিশীলতা বৃদ্ধিসহ জনমুখী প্রশাসন সৃষ্টিতে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে বলে তিনি দৃঢ় আশা ব্যক্ত করেন।