চলচ্চিত্র পরিবার থেকে বয়কট হলেন বাংলা চলচ্চিত্রের নায়ক শাকিব খান। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে চিত্রনায়ক শাকিব খান অভিনীত ‘নতুন এবং পুরাতন’ কোনো ছবির শুটিংয়ের কাজে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিবারের অন্তর্ভুক্ত সংগঠন সমূহের কোনো সদস্যই অংশগ্রহণ করবে না।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের ১৮টি সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত চলচ্চিত্র পরিবার। এই পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শাকিব খানের সাথে আর কাজ করবেন না তারা। সংগঠনের আহ্বায়ক আকবর হোসেন পাঠান ওরফে অভিনেতা ফারুক ও সদস্য সচিব বদিউল আলম খোকন স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এমনটাই জানানো হয়। আরও বলা হয়েছে, চিত্রনায়ক শাকিব খান সংশ্লিষ্ট সকল চলচ্চিত্র নির্মাণ সংক্রন্ত কাজ থেকে নিজেদের বিরত রাখবেন। সোমবার ১৭ জুলাই সন্ধ্যায় চলচ্চিত্র পরিবারের এক বৈঠকে এমন সিদ্ধান নেন নেতারা। তারপর এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, ‘গেল ২৩ জুন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিবারের আলোচনার প্রেক্ষিতে প্রতীয়মান হয়েছে, যৌথ প্রযোজনা নিয়ে শাকিব খান বীর মুক্তিযোদ্ধা চিত্রনায়ক ফারুকসহ অন্যদের উদ্দেশ্য করে যে বক্তব্য দিয়েছেন সেটা গুরুতর অপরাধ। যার প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিবার এমন সিন্ধান্ত নিয়েছে।’

চলচ্চিত্র পরিবারের আহ্বায়ক ফারুক বলেন, ‘চলচ্চিত্র পরিবারের সংগঠনগুলো কেউ শাকিবের সঙ্গে কাজ করবে না। তাই এটা এক প্রকার বয়কট বলা যায়। যদি চলচ্চিত্র পরিবারের আওতাভুক্ত সংগঠনের কেউ শাকিবের সঙ্গে কাজ করেন তাহলে আমরা তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেব।’ চলচ্চিত্র পরিবারের সদস্য সচিব ও চিত্রপরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন বলেন, ‘পরবর্তী সিদ্ধান্ত না নেয়া পর্যন্ত শাকিবের উপর চলচ্চিত্র পরিবারের এই সিদ্ধান্ত বলবৎ থাকবে। তার নির্মাণাধীন ছবিতেও কাজ করবে না।’

চলচ্চিত্র পরিবারের এমন সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে শাকিব খান বলেন, ‘এটা প্রযোজকদের ব্যাপার। এখানে আমার কিছু বলা নেই। প্রযোজক ও দর্শক চাইলে আমি ছবি করব।’

এদিকে দু’একদিনের মধ্যে শিল্পী সমিতিতে শাকিবের সদস্যপদ বাতিল করা হতে পারে বলেও শোনা যাচ্ছে।