সাংবাদিকতা বিভাগের ছাত্রীকে এবার যৌন হয়রানির শিকার হতে হল। আর এই হয়রানির অভিযোগে সাংবাদিকতা বিভাগের এক শিক্ষককে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।

নিজ বিভাগের একাধিক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক মীর মোশারেফ হোসেনকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭৪তম সিন্ডিকেট সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সাংবাদিকতা বিভাগের কয়েকজন ছাত্রীর যৌন হয়রানির অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গঠিত তদন্ত কমিটির চূড়ান্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে মীর মোশারেফ হোসেনকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ছাড়া নাট্যকলা বিভাগের আরেক ছাত্রীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বিভাগের এক শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। মীর মোশারেফ হোসেনের চাকরিচ্যুতি ও আরেক শিক্ষককে কারণ দর্শানোর বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. ওহিদুজ্জামান।

রেজিস্ট্রার দপ্তর সূত্র জানায়, ২০১৬ সালের ৫ এপ্রিল গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের এক ছাত্রী মীর মোশারেফ হোসেনের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেন। এ সময় তিনি মুঠোফোনে কথোপকথনের রেকর্ডসহ বিভিন্ন প্রমাণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে উপস্থাপন করেন।

র পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ সেলিম ভূঁইয়াকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে কর্তৃপক্ষ। ২৮ এপ্রিল বিশ্ববিদ্যালয় মীর মোশারেফ হোসেনকে সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করে। পরে ওই বিভাগের স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ের আরও কয়েকজন ছাত্রী তাঁর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেন।

এসব অভিযোগ তদন্ত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধ সেল।